কোষের গঠন ও কোষ বিভাজন

জীবন বিজ্ঞান জিকের এই সেকশনে পড়ুন কোষের গঠন, বিভিন্ন কোষাঙ্গানু ও কোষ বিভাজন সমন্ধধীয় প্রশ্ন ও উত্তর।
ফিজিক্স জিকে : আলোক তরঙ্গ ভারতীয় সংবিধান সম্বন্ধীয় জিকে 
পর্যায় সারণী সম্বন্ধীয় প্রশ্ন রেলের বিগত বছরের প্রশ্ন ও উত্তর পার্ট 2
  1. একটি কোষ চক্রের সময়কাল কত ?
    (A) 24 ঘন্টা
    (B) 23 ঘন্টা
    (C) 1 ঘন্টা
    (D) 22 ঘন্টা
    Ans-(A) 24 ঘন্টা
    (একটি কোষ বিভাজন কিন্তু 24 ঘন্টা ধরে চলে।এই 24 ঘন্টার মধ্যে 23 ঘন্টা চলে ইন্টারফেজ এবং বাকি এক ঘণ্টা চলে মাইটোসিস।
    * ইন্টারফেজের সময় কোষ নিজেকে প্রস্তুত করে অর্থাৎ কোষ নিজেকে মাইটোসিসের জন্য প্রস্তুত করে।* কোষ বিভাজিত হওয়ার আগে নিজেকে প্রস্তুত করে আর সেই বিভাজিত পর্বটাকে আমরা বলি ইন্টারফেজ।ইন্টার কথার অর্থ “মধ্যবর্তী” এবং ফেজ কথার অর্থ “দশা”)।
  2. ইন্টারফেজ বা অন্তর্বর্তী দশার কয়টি স্তর থাকে?
    (A) পাঁচটি স্তর
    (B) চারটি স্তর
    (C) তিনটি স্তর
    (D) একটি স্তর
    Ans-(C) তিনটি স্তর
    (যে তিনটি দশায় ইন্টারফেজ হয় তা হলো G1, S এবং G2
    * তবে একটি ব্যতিক্রম দশা আছে সেটা কিন্তু সব কোষে হয় না।সেটা কয়েকটি বিশেষ কোষে হয়।সেটা হল G0 দশা।
    * কোষ বিভাজিত হওয়ার আগে নিজেকে প্রস্তুত করে আর সেই বিভাজিত পর্বটাকে আমরা বলি ইন্টারফেজ।ইন্টার কথার অর্থ “মধ্যবর্তী” এবং ফেজ কথার অর্থ “দশা”)।
  3. মাইটোসিস ফেজ এবং S ফেজের মাঝখানে যে দশা থাকে তাকে বলে-
    (A) G1 দশা
    (B) S দশা
    (C) G2 দশা
    (D) G0 দশা
    Ans-(A) G1 দশা
    (G1 দশাতে কিন্তু কোনো প্রোটিন Synthesis হয় না)
  4. মাইটোসিসের পরের দশাটি কি?
    (A) G1 দশা
    (B) S দশা
    (C) G2 দশা
    (D) G0 দশা
    Ans-(A) G1 দশা
    (মাইটোসিস দশা হলো কোষ বিভাজনের একটি ধকলের প্রসেস।এই ধকলের পরে কোষকে একটু রিকস্ নেওয়ার দরকার পরে।ফলে Basically G1 দশাতে কোষ কি করে মাইটোকন্ড্রিয়াতে ATP সংশ্লেষ বাড়িয়ে দেয় যাতে G1 নির্দিষ্ট পুষ্টি অর্থাৎ মেটাবলিক যে কাজকর্ম সেটা যাতে G1-এর হয় তাঁর জন্য G1 কি করে নিজেকে Strong করতে থাকে)।
  5. মাইটোসিস বা M ফেজের আগের আগের দশা কোনটি?
    (A) G1 দশা
    (B) S দশা
    (C) G2 দশা
    (D) G0 দশা
    Ans-(C) G2 দশা
    (G2 দশাতে শুধুমাত্র প্রোটিন সংশ্লেষ হয়।
    * কারণ আমরা জানি মাইটোসিস হওয়ার জন্য প্রোটিন খুব গুরুত্বপূর্ণ জিনিস)।
  6. ‘S’ দশার অপর নাম কি?
    (A) রেপ্লিকেশন প্রসেস
    (B) DNA প্রসেস
    (C) ATP রেপ্লিকেশন প্রসেস
    (D) DNA রেপ্লিকেশন প্রসেস
    Ans-(D) DNA রেপ্লিকেশন প্রসেস
    (একটা কথা মাথায় রাখবে DNA রেপ্লিকেশন হয় প্রথম ‘S’ দশাতেই।
    * ‘S’ দশাতে কিন্তু ক্রোমোজোম রেপ্লিকেশন হয় না।অর্থাৎ ক্রোমোজোম বিভাজন ‘S’ দশাতে হয় না।* DNA সংশ্লেষ হয় ইন্টারফেজ বা অন্তর্বর্তী দশার ‘S’পর্যায়ে)।
  7. কোন দশাতে DNA ডাবল হয়ে যায়?
    (A) G1 দশাতে
    (B) S দশাতে
    (C) G2 দশাতে
    (D) মিয়োসিস দশাতে
    Ans-(B) S দশাতে
    (অর্থাৎ ‘S’ দশার শুরুতে যদি 2টি DNA থাকে তাহলে শেষে 4টে DNA হয়ে যায়।* একটা কথা অবশ্যই মাথায় রাখবে ক্রোমোজোমের কিন্তু কোনো পরিবর্তন হয় না।অর্থাৎ ক্রোমোজোম অপরিবর্তিত থাকে)।
  8. ‘S’ পর্যায়ের শুরুতে যদি DNA 2C সংখ্যক থাকে তাহলে শেষ পর্যায়ে কতগুলি হবে?
    (A) 8C
    (B) 6C
    (C) 4C
    (D) অপরিবর্তিত থাকবে
    Ans-(C) 4C
    (একমাত্র ‘S’ পর্যায়ে DNA ডাবল হয়ে যায়।* কিন্তু ক্রোমোজোম অপরিবর্তিত থাকে)।
  9. M পর্যায় বা মাইটোসিস দশা এবং DNA (S পর্যায়)রেপ্লিকেশন পর্যায়ের মধ্যবর্তী দশা কোনটি?
    (A) G1 দশা
    (B) S দশা
    (C) G2 দশা
    (D) G0 দশা
    Ans-(A) G1 দশা
    (G1 দশাতে কোনো প্রোটিন Synthesis হয় না।* প্রোটিন Synthesis হয় G2 দশাতে)।
  10. মাইটোসিস প্রাণীদের ক্ষেত্রে দেখা যায়-
    (A) হ্যাপ্লয়েড কোষে
    (B) ডিপ্লয়েড কোষে
    (C) অন্তবর্তী কোষে
    (D) উপরের কোনোটিই নয়
    Ans-(B) ডিপ্লয়েড কোষে
    (ডিপ্লয়েড কোষে 2N সংখ্যক ক্রোমোজোম থাকে।N=23 তাহলে 2N = 2×23 = 46 টি অর্থাৎ 23 জোড়া ক্রোমোজোম থাকে ডিপ্লয়েড কোষে।
    * একটা কথা মনে রাখবে উদ্ভিদের ক্ষেত্রে কিন্তু ডিপ্লয়েড ও হ্যাপ্লয়েড উভয়ই কোষেই মাইটোসিস হতে পারে)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *