জীব বিজ্ঞান : চলন ও গমন

1. নিচের কোনটি গমনে সক্ষম উদ্ভিদ?
(A) ক্ল‍্যামাইডোমোনাস
(B) সাগর কুসুম
(C) স্পঞ্জ
(D) প্রবাল

Ans- (A) ক্ল‍্যামাইডোমোনাস
(ক্ল‍্যামাইডোমোনাস ছাড়াও আরও কয়েকটি উদ্ভিদ গমনে সক্ষম তা হলো ভলভক্স ও ডায়াটম। একটা কথা মাথায় রাখবে এইসব উদ্ভিদ কিন্তু শৈবাল জাতীয়।
* ক্ল‍্যামাইডোমোনাস হলো এক কোষীয় শৈবাল
* ক্ল‍্যামাইডোমোনাস ট্যাকটিক চলন যুক্ত একটি উদ্ভিদ
* যে প্রক্রিয়ায় জীব স্বতঃস্ফূর্তভাবে বা কোনও উদ্দীপকের প্রভাবে অঙ্গবিশেষের সঞ্চালনের মাধ্যমে সামগ্রিকভাবে স্থান পরিবর্তন করে, তাকে গমন বলে।
জীবদেহে গমনের উদ্দেশ্য :-
(i) খাদ্য-অন্বেষণ করা,
(ii) উপযুক্ত বাসস্থানের খোঁজ করা,
(iii) অনুকূল পরিবেশের খোঁজ করা,
(iv) প্রজন ও বংশবিস্তার ইত্যাদি)।

2. গমনে অক্ষম প্রাণী নিন্মের কোনটি?
(A) ডায়াটম
(B) ভলভক্স
(C) সাগর কুসুম
(D) ক্ল‍্যামাইডোমোনাস
Ans- (C) সাগর কুসুম
(সাগর কুসুম ছাড়াও গমনে অক্ষম ব্যতিক্রমধর্মী প্রাণী হলো স্পঞ্জ ও প্রবাল)।

3. কুমড়ো গাছের কান্ডের রোমের কোষে কোন প্রকার চলন দেখা যায়?
(A) অ্যামিবয়েড চলন
(B) সিলিয়ারি চলন
(C) সারকুলেশন চলন
(D) রোটেশন চলন
Ans- (C) সারকুলেশন চলন বা আবর্ত গতি
* অপরিণত উদ্ভিদ কোষের কোষ গহ্বরগুলিকে কেন্দ্র করে প্রটোপ্লাজমের বহুমুখী গতিকে সারকুলেশন চলন বলে।
* এই ধরণের চলনে উদ্ভিদকোষে অনেকগুলি ছোটো ছোটো ভ্যাকুওল দেখা যায়।
* সাধারণত অপরিণত কোষে সারকুলেশন চলন বা আবর্ত গতি দেখা যায়।
* যে প্রক্রিয়ায় জীব স্বতঃস্ফূর্তভাবে বা কোনো উদ্দীপকের প্রভাবে দেহের কোনো অংশ বা অঙ্গপ্রত্যঙ্গ সঞ্চালন করে,তাকে চলন বলে)।

4. ইউগ্লিনার গমন অঙ্গের নাম কি ?
(A) সিটি
(B) ফ্লাজেলা
(C) ক্ষণপদ
(D) সিটা
Ans- (B) ফ্লাজেলা

5. নিন্মের কোনটিতে রোটেশন চলন দেখা যায়?
(A) ক্ল‍্যামাইডোমোনাসে
(B) শৈবালে
(C) পাতা শ্যাওলাতে
(D) ফার্ন গাছের পাতায়
Ans- (C) পাতা শ্যাওলাতে
(পাতা শ্যাওলা ছাড়াও হাইড্রিলা নামক উদ্ভিদে রোটেশন চলন দেখা যায়।
* পাতা শ্যাওলা কিন্তু আবার থার্মোট্যাকটিক চলনের উদাহরণ।
* অপরিণত উদ্ভিদ কোষের কোষ গহ্বরগুলিকে কেন্দ্র করে প্রটোপ্লাজমের একমুখী গতিকে রোটেশন চলন বলে)।

6. গ্লুকোজের দ্বারা আকৃষ্ট হয়ে মসের শুক্রাণুর চলন ও ম্যালিক অ্যাসিডের আকর্ষণে ফার্ন গাছের শুক্রাণুর ডিম্বাণুর দিকে চলন হলো-
(A) কেমোট্যাকটিক চলন
(B) থার্মোট্যাকটিক চলন
(C) রিও ট্যাকটিক চলন
(D) ফটোট্যাকটিক চলন
Ans- (A) কেমোট্যাকটিক চলন
(এই চলনে কেমিক্যাল বা রাসায়নিক উদ্দীপক হিসেবে কাজ করে।এই চলনকে কেমোন্যাস্টিক চলনও বলে
* সূর্যশিশির পতঙ্গভুক উদ্ভিদে এই ধরনের চলন দেখা যায়)।

7. পরিবলন বা সারকাম‌ন‍্যুটেশন চলনের উদাহরণ নিন্মের কোনটি?
(A) অপরাজিতার অগ্রভাগ বক্রপথে অগ্রসর
(B) লাউ ও কুমড়োর পেঁচানো আকর্ষ
(C) কচি কলাপাতার গুটিয়ে থাকা অংশ
(D) শেওলা পাতার অগ্রভাগের অংশ
Ans- (B) লাউ ও কুমড়োর পেঁচানো আকর্ষ

8. সুন্দরীর স্বাসমূল কোন ধরনের চলন?
(A) জিওট্রপিক চলন
(B) নিকটিট্যাকটিক চলন
(C) হাইড্রোট্রপিক চলন
(D) থার্মোট্যাকটিক চলন
Ans- (A) জিওট্রপিক চলন
(এই জিওট্রপিক চলন অভিকর্ষের দ্বারা প্রভাবিত হয় বলে একে “অভিকর্ষবর্তী” চলন বলে।
* সুন্দরী, গরান প্রভৃতি লবনাম্বু উদ্ভিদের স্বাসমূলে নেগেটিভ জিওট্রপিক চলন লক্ষ্য করা যায়)।

9. নিন্মের কোনটি ফটোন্যাস্টি চলনের উদাহরণ নয়?
(A) সূর্যমুখী ফোটা
(B) পদ্মফুল ফোটা
(C) তেঁতুল পাতা কম আলোতে বুজে যাওয়া
(D) টিউলিব ফুলের ফোটা
Ans- (D) টিউলিব ফুলের ফোটা

10. উদ্দীপকের প্রকৃতি অনুসারে ন্যাস্টিক চলন বা ব্যাপ্তি চলন কয় প্রকার?
(A) চার প্রকার
(B) পাঁচ প্রকার
(C) ছয় প্রকার
(D) তিন প্রকার
Ans- (B) পাঁচ প্রকার
(এই পাঁচ প্রকার চলন হলো-
(i) ফটোন্যাস্টি চলন
(ii) থার্মোন্যাস্টি চলন
(iii) নিকটিন্যাস্টি চলন
(iv) কেমোন্যাস্টি চলন
(v) সিসমোন্যাস্টি চলন)।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *