পলাশী লুন্ঠন কী? পলাশী বিতর্ক কী?

পলাশী লুন্ঠন 

1757 খ্রিস্টাব্দে পলাশীর যুদ্ধে জয়লাভের পর ইংরেজ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি ও তার কর্মচারীবৃন্দ দুর্বল নবাব মীরজাফরের কাছ থেকে উপঢৌকন, উৎকোচ ও ব্যক্তিগত বাণিজ্য এবং নানাভাবে অবৈধ শোষণের মাধ্যমে বাংলা থেকে বিপুল অর্থ সংগ্রহ করে তা ইংল্যান্ডে পাঠাতো। এই ঘটনাকে ঐতিহাসিকেরা “পলাশীর লুণ্ঠন“(Plassey Plunder) বলেছেন। ইংরেজ ঐতিহাসিকেরা এই “পলাশীর লুণ্ঠন তত্ত্ব” মানতে রাজী না হলেও ভারতীয় ঐতিহাসিকরা একে বাস্তব সত্য বলে মানেন।
এই পলাশী লুন্ঠন 1757 – 1857 সাল পর্যন্ত চলে।

পলাশী বিতর্ক কী?

1757 খ্রিস্টাব্দে পলাশী যুদ্ধের প্রেক্ষাপট বিশ্লেষণ করতে গিয়ে ঐতিহাসিক পিটার মার্শাল,রজতকান্ত রায় মুর্শিদাবাদের অভিজাত বর্গের সিরাজ বিরোধী চক্রান্তের উপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন।কিন্তু ঐতিহাসিক সুশীল চৌধুরীর মতে ইংরেজরাই ছিল সিরাজ বিরোধী চক্রান্তের স্রষ্টা এবং ইংরেজরা পলাশী যুদ্ধের পরিকল্পনা ও ভারতীয় ষড়যন্ত্রকারীদের দিয়ে তা বাস্তবায়িত করে । এই বিতর্ক পলাশী বিতর্ক  নামে খ্যাত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Don`t copy text!